কম দামের সেরা ১০টি ওয়াটার প্রুফ স্মার্টফোন মার্কেট কাপাচ্ছে! দেখুন

5m 5um0n

Author:

Total Comments: 985

Total: 181 Posts

Home » Android phone review » কম দামের সেরা ১০টি ওয়াটার প্রুফ স্মার্টফোন মার্কেট কাপাচ্ছে! দেখুন

Welcome To BdtechnoTips

আমরা যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করি তাদের এই সময়টা একটু বেশী দুশ্চিন্তার ভেতরে থাকতে হয়। কারন আমরা সাধারনত যে স্মার্টফোন গুলো ব্যবহার করি এগুলো সবই ব্রয়লারের বাচ্চার মতো। মানে একটু খানি পানির সংস্পর্শে গেলেই এরা কাত হয়ে পরে।

তো সে যাই হোক যারা মোটামুটি বাজাটের নতুন স্মার্ট ফোন কেনার কথা ভাবছেন তাদের জন্য আজকের এই পোস্ট। আজকে আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিবো বর্তমান সময়ের সেরা ১০টি পানি ও ধুলাবালি নিরোধক স্মার্টফোনের সাথে।

১. সনি এক্সপিরিয়া এক্স আলট্রা:

এতে আছে ৬ ইঞ্চির আইপিএস এলসিডি ৭২০x১২৮০ পিক্সেল এর ডিসপ্লে। অক্টাকোর ২ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ৫৩ মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫৫ হেলিও পি১০ প্রসেসর। র্যামে আছে ৩জিবি, সাথে ১৬ জিবি স্টোরেজ। এর রিয়ার ক্যামেরাটি ২১.৫ মেগাপিক্সেল আর ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ১৬ মেগা পিক্সেল। অপারেটিং সিস্টেম ৬.০.১ মার্শম্যালো। আর ব্যাটারি আছে ২৭০০ এমএএইচ। দাম পড়বে, প্রায় ২৮ হাজার টাকা।

২. নোকিয়া ৬:

এতে আছে ৫.৫ ইঞ্চির আইপিএস এলসিডি ১০৮০x১৯২০ পিক্সেল ডিসপ্লে। অক্টাকোর ১.৪ গিগাহার্টজ কর্টেক্স এ৫৩ কোয়ালকম এমএসএম৮৯৩৭ ৪৩০ প্রসেসর। সাথে ৩জিবি র্যাম এবং ৩২জিবি স্টোরেজ। এর রিয়ার ক্যামেরাটি ১৬ এমপি আর ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ৮ এমপি। অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৭.১.১ নুগেট। ব্যাটারি আছে ৩০০০ এমএএইচ। দাম পড়বে প্রায় ২২ হাজার টাকা।

৩. মটোরোলা মটো জি টারবো:

৫ ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ৭২০x১২৮০ পিক্সেল ডিসপ্লে। ১.৫ গিগাহার্টজ কর্টেক্স-এ৫৩ কোয়ালকম এমএসএম৮৯৩৯ স্ন্যাপড্রাগন ৬১৫ প্রসেসর। ২জিবি র্যাম, সাথে ১৬জিবি স্টোরেজ। রিয়ার ক্যামেরাটি ১৩এমপি আর ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ৫ এমপি। অ্যান্ড্রয়েড ৫.১.১ ললিপপ অপারেটিং সিস্টেম। ব্যাটারি ২৪৭০ এমএএইচ। দাম পড়বে প্রায় ১২ হাজার টাকা।

৪. অ্যাপেল আইফোন এক্স:

আইফোন এক্স একটি অসাধারণ স্মার্টফোন। সবার প্রথমেই যেটা বলতে হয়, এই ফোনটিতে রয়েছে বিশেষ স্ক্রিন। ৫.৮ ইঞ্চি সুপার রেটিনা এইচডি স্ক্রিনটিকে বলা হয়েছে ‘ওএলইডি’। এই স্ক্রিনের উজ্জ্বলতা ও ফেসিয়াল রিকগনিশন আগের মডেলগুলির ‘এলসিডি’ স্ক্রিন থেকে অনেক বেশি আকর্ষণীয় হবে, তা বলাই বাহুল্য। মডেলটির স্ক্রিন ‘এজ টু এজ’ অর্থাত্ ফোনের দুই কোণ পর্যন্ত বিস্তৃত। এই ফোনের কোনও ‘হোম বটন’ নেই। ফোনটি ‘আনলক’ করার ক্ষেত্রেও রয়েছে বিশেষ পদ্ধতি। ব্যবহারকারী যদি ফোনটিকে মুখের সামনে ধরেন, তবে ফোনের ক্যামেরায় ব্যবহারকারীর মুখের ছবি উঠে যাবে। ছবি মিললে, তারপরই ফোন ‘আনলক’ হবে। এটি সম্পূর্ণ ওয়াটারপ্রুফ বা জলরোধী ফোন বলে যে কোন স্থানে জল থাকলেও সেখানে নিরাপদে ব্যবহার করা যাবে।

৫. ওয়ানপ্লাস ২:

৫.৫ ইঞ্চি এলটিপিএস এলসিডি ১০৮০x১৯২০ পিক্সেল ডিসপ্লে। কোয়াড কোর ২.৭ গিগাহার্টজ ক্রেইট ৪৫০ কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮০৫ প্রসেসর। ৩/৪জিবি র্যাম এবং ১৬/৬৪ জিবি স্টোরেজ। রিয়ার ক্যামেরাটি ১৩ এমপি আর ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ৫ মেগাপিক্সেলের। অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৫.১ ললিপপ। ব্যাটারি ৩৩০০ এমএএইচ। দাম পড়বে প্রায় ২০ হাজার টাকা।

৬. ভিভো ভি৫এস:

৫.৫ ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ৭২০x১২৮০ পিক্সেল ডিসপ্লে। অক্টাকোর ১.৫ গিগাহার্টজ, কর্টেক্স এ৫৩ মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫০ প্রসেসর। ৪জিবি র্যাম সাথে ৬৪ স্টোরেজ। প্রধান ক্যামেরাটি ১৩ মেগাপিক্সেল আর ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ২০ মেগাপিক্সেলের। অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ মার্শম্যালো। ব্যাটারি ৩০০০ এমএএইচ। দাম পড়বে ২০ হাজার টাকা।

৭. এইচটিসি ডিজায়ার আই:

৫.৫ ইঞ্চি টিএফটি ১০৮০×১৯২০ পিক্সেল ডিসপ্লে। কোয়াডকোর ২.৩ গিগাহার্টজ ক্রেইট ৪০০ কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮০১ প্রসেসর। ২ জিবি র্যাম সাথে ১৬ জিবি স্টোরেজ। রিয়ার ক্যামেরাটি ১৩ এমপি, ফ্রন্ট ক্যামেরাটিও ১৩ এমপি। অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪.২ কিটক্যাট। ব্যাটারি ২৪০০এমএএইচ।

৮. স্যামসাং গ্যালাক্সি এক্সকভার ৪:

৫ ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ৭২০x১২৮০ পিক্সেল ডিসপ্লে। কোয়াডকোর ১.৪ গিগাহার্টজ প্রসেসর। ২জিবি র্যাম সাথে ১৬জিবি স্টোরেজ। রিয়ার ক্যামেরাটি ১৩ এমপি আর ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ৫এমপি। অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নুগেট। ব্যাটারি ২৮০০ এমএএইচ। দাম পড়বে প্রায় ২৪ হাজার টাকা।

৯.স্যামসাং গ্যালাক্সী নোট ৮:

এটা সত্যিই যে স্যামসাং গ্যালাক্সী নোট ৮ একটি দামী স্মার্টফোন কিন্তু জীবনের সেরা জিনিস সস্তায় আসে না। পারফরমেন্স সর্বদাই বেশ ভাল হয়, পর্দা আশ্চর্যজনক হয়, এবং ফটোগ্রাফি ফল্ট কঠিন। এমনকি বিক্সবাই নিজে কিছু দেখিয়েছেন কিন্তু অত্যধিক, অপ্রয়োজনীয় বৈশিষ্ট্যের এটা হতে পারে এমন ভয় ছিল। যদি আমরা নতুন নোট ৮ এর বিরুদ্ধে নিক্ষেপ করতে পারি তবে এটি একটি ব্যয়বহুল মূল্য ট্যাগ, একটি সামান্য অদ্ভুত ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার এবং একটি লম্বা কাচের অংশ যা ধাতু-শরীরের ফোনের তুলনায় আরো ভঙ্গুর হতে পারে, আমরা এটি আমাদের টেক অ্যাডভাইজারের প্রস্তাবিত ব্যাজের একেবারে উপযুক্ত। তবে আরও একটি চমৎকার বিষয় হচ্ছে এটি পানিতে পড়ে গেলেও কোন সমস্যা নেই। অর্থাৎ এটি সম্পূর্ণ ওয়াটারপ্রুফ বা জলরোধী একটি ফোন।

১০. সনি এক্সপিরিয়া জেড ৩:

৫.২ ইঞ্চি আইপিএস এলসিডি ১০৮০×১৯২০ পিক্সেল ডিসপ্লে। কোয়াডকোর ২.৫ গিগাহার্টজ ক্রেইট ৪০০ কোয়ালকম এমএসএম৮৯৭৪এসি স্ন্যাপড্রাগন ৮০১ প্রসেসর। ৩জিবি র্যাম সাথে ১৬জিবি স্টোরেজ। এর রিয়ার ক্যামেরাটি ২০.৭ মেগাপিক্সেল আর ফ্রন্ট ক্যামেরাটি ২.২ এমপি। অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪ কিটক্যাট। ব্যাটারি ৩১০০ এমএএইচ।

 

কিছু কথা:

এই ছিলো আজকের টিপস।পরবর্তী টিপস নিয়ে আবার দেখা হবে। সুরক্ষিত থাকুন, সুস্থ থাকুন।BDtechnotips সাথে থাকুন।

ধন্যবাদ

 

 

Leave a Reply